ছবি তোলা কি হারাম নাকি জায়েজ ইসলামী শরীয়াত/ বিধান /মাসায়ালা যুক্তিসহ

ছবি তোলা প্রসঙ্গে যে আমরা photography নেই ফোটো তুলি এক্ষেত্রে অনেকে বলে থাকেন কেয়ামতের দিন সবচেয়ে বেশি শাস্তি দেওয়া হবে যাদের তারা হচ্ছে চিত্রাঙ্কন করে যারা মূর্তি বানায় |

তো এই দ্বারা বুজায় যে ছবি তোলে এটা কিন্তু না এটা হচ্ছে যারা ভাস্কর্য তৈরী করে প্রতিমা বানায় মূর্তি বানায় প্রাণ আছে এমন জিনিসের চিত্র অঙ্কণ করে। অপ্রয়োজনে এটার কথা বলা হয়েছে।

ছবি তোলা কি ইসলামে জায়েজ /হারাম c

কিন্তু আমরা যে ছবি তুলি এটাকে image বলে এটা এটা তুলতে কোনো সমস্যা নেই। এটা তোলা হারাম নয় মনে রাখবেন কোন জিনিসকে হারাম বলে ঘোষণা দিতে হলে সুস্পষ্ট দলিল লাগে। অকাট্ট দলিল ছাড়া কোন জিনিসকে হারাম বলে ঘোষণা দেওয়া যায় না।

ছবি তুলা নিয়ে আরো পোস্ট

আমরা যে ছবিটা তুলি এটা মূলত আমাদের চেহারার একটা reflection কে আমরা কাগজে ধরে রাখি, যেমন আয়নার সামনে যখন আমি যে দাঁড়ালাম, এই আমি এই আমার আয়নাতে যাকে দেখা যায় সেটাকে আমি না আমি হচ্ছি এটা আর ওইটা হচ্ছে আমার reflection।

তো এই reflection তো যদি ধরে রাখা যায় না হয় তাহলে তো আয়নার সামনে দাঁড়ানো যাবে না। কিন্তু আয়নার সামনে আমাদের নবী পড়তেন ঃ আল্লাহ আমার চেহারা যেমন সুন্দর করেছেন আচরণকেও সুন্দর করে দেন।

রোজার সময়সূচী ২০২০

তো আয়নাতে আমরা যেটা দেখি সেটাকেই মূলত কাগজে ধারণ করা হয়। এটা জায়েজ আছে এটা বর্তমান প্রেক্ষাপটেখুবই জরুরী পরীক্ষা দিতে গেলে admit কার্ড এর জন্য ছবি লাগে, ভোটার id তে ছবি লাগে, পাসপোর্ট করতে ছবি লাগে, immigration এর ছবি লাগে।

যেকোনো কাজের ছবি লাগে তাই এটা খুবই জীবন ঘনিষ্ঠের একটা বিষয় ছবি তুলতে পারবে তবে।
অপ্রয়োজনে যেন তোলা না হয় আপনার বিভিন্ন life event life বিভিন্ন প্রোগ্রামের।

ছবিগুলো কিন্তু আপনারা চাইলে তুলে রাখতে পারেন তবে

অপ্রয়োজনীয় বারবার এত বেশি ছবি তোলো এটা ঠিক হবে না। এটা ছবির ক্ষেত্রে যে কোন জিনিসের ক্ষেত্রে ব্যক্তি ইসলামের সৌন্দর্য হচ্ছে এমন জিনিস বর্জন করা যেটার কোনো প্রয়োজন নেই।

উত্তর দিয়েছেনঃঃ মিজানুর রহমান আজহারী

(Visited 15 times, 1 visits today)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*